IELTS এর প্রাথমিক ধারণা

IELTS এর পূর্ণরূপ হল International English Language Testing System । এটি ইংরেজি ভাষায় দক্ষতা যাচাইয়ের জন্য আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত একটি টেস্টিং পদ্ধতি। যেসব প্রার্থী  অধ্যয়ন বা কাজের জন্য বিভিন্ন দেশে যান এবং সেখানে যোগাযোগের ভাষা যদি ইংরেজি হয়, তাহলে তাদের ইংরেজি ভাষার উপর দক্ষতা প্রমাণের জন্য IELTS পরীক্ষা  দেওয়ার প্রয়োজন হয়।

IELTS যৌথভাবে কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় (কেমব্রিজ ESOL), ব্রিটিশ কাউন্সিল এবং IDP: IELTS Australia দ্বারা পরিচালিত হয়।

অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, নিউজিল্যান্ড, ইউকে এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সহ  অনেক দেশের বিশ্ববিদ্যালয় এবং নিয়োগকর্তাদের দ্বারা IELTS স্বীকৃত। এটি পেশাদার সংস্থা, অভিবাসন কর্তৃপক্ষ এবং অন্যান্য সরকারী সংস্থা কর্তৃকও স্বীকৃত।

পরীক্ষার ধরনঃ IELTS এর দুটি মডিউল রয়েছে। যথাঃ

  • ১। Academic Module
  • ২। General Training Module

Academic Training Module- যারা বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে বা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উচ্চশিক্ষা অর্জন বা প্রফেশনাল ডিগ্রির জন্য ইংরেজি ভাষাভাষীর দেশে যেতে চান তাদের জন্য এই মডিউলটি প্রযোজ্য।

General Training Module- যারা কারিগরি বিষয়ক কাজের অবিজ্ঞতা অর্জন, বিভিন্ন নন-একাডেমিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ অথবা ইমিগ্রেশন এর জন্য ইংরেজি ভাষাভাষীর দেশে যেতে চান তাদের জন্য এই মডিউলটি প্রযোজ্য।

দুটি মডিউলেই নিমোক্ত চারটি সেকশনের উপর টেস্ট দিতে হয়।

  • ১। Listening
  • ২। Reading
  • ৩। Writing
  • ৪। Speaking

পরীক্ষার দিন চারটি সেকশনের টেস্ট নিচের ক্রমানুসারে নেওয়া হয়। তবে কিছু কেন্দ্রে স্পিকিং টেস্টটি এক-দুই সপ্তাহ পূর্বে বা পরেও নেওয়া হয়।

Listening Test: এই অংশে একজন পরিক্ষার্থীর ইংরেজি শুনে বোঝার ক্ষমতা যাচাই করা হয়। এই টেস্টটি সাধারণত ৩০ মিনিটের হয়ে থাকে। Academic এবং General training উভয় মডিউলে একই ধরণের প্রশ্ন হয়ে থাকে। যেখানে মোট চারটি বিভাগে ক্রমবর্ধমান কঠিন ক্রমে অডিও চালানো হয়। প্রতিটি বিভাগে যেকোনো বিষয়ে বক্তব্য বা কথোপকথন শোনানো হয় এবং প্রতিটি অডিও একবারই চালানো হয়। প্রতিটি বিভাগের অডিও শোনার সময়ই  প্রশ্নসমূহের উত্তর প্রশ্নপত্রে লিখতে হয়।প্রশ্নগুলো সাধারণত  MCQ, সংক্ষিপ্ত উত্তর, বাক্যপূরন ধরণের হয়ে থাকে। সবশেষে প্রশ্নপত্রে লেখা উত্তরগুলো উত্তরপত্রে স্থানান্তর করার জন্য ১০ মিনিট সময় দেওয়া হয়। অর্থাৎ ৩০ মিনিটে চারটি বিভাগে মোট ৪০ টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়।

Reading Test: এই অংশে একজন পরিক্ষার্থীর ইংরেজি ভোকাবুলারী ভান্ডার বা প্যাসেজ এর অর্থ বোঝা এবং দ্রুত পড়ার ক্ষমতা যাচাই করা হয়। এই টেস্টটি সাধারণত ৬০ মিনিটের হয়ে থাকে। Academic এবং General training মডিউলে ভিন্ন ধরণের প্রশ্ন হয়ে থাকে এবং দুটি মডিউলের মধ্যে General training মডিউলটি তুলনামূলকভাবে সহজ।

Academic training মডিউলে ভিন্ন ভিন্ন তিনটি প্যাসেজ ক্রমবর্ধমান কঠিন ক্রমে দেওয়া হয়।প্যাসেজগুলো সাধারণত টেক্সট বই বা রিসার্স পেপার থেকে নেওয়া হয়। প্যাসেজগুলো পড়ে পড়ে উত্তর করতে হয়। প্রশ্নগুলো MCQ, তথ্য সত্য-মিথ্যা যাচাই, শিরোনাম ম্যাচিং, সংক্ষিপ্ত উত্তর, বাক্যপূরন ইত্যাদি ধরণের হয়ে থাকে। অর্থাৎ ৬০ মিনিটে তিনটি ভিন্ন ভিন্ন প্যাসেজ থেকে মোট ৪০ টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়।

General training মডিউলেও ভিন্ন ভিন্ন তিনটি প্যাসেজ ক্রমবর্ধমান কঠিন ক্রমে দেওয়া হয়।প্যাসেজগুলো সাধারণ টেক্সট বই, জনপ্রিয় সংবাদপত্র বা ছোটগল্প থেকে নেওয়া হয়। প্যাসেজগুলো পড়ে পড়ে উত্তর করতে হয়। প্রশ্নগুলো MCQ, তথ্য সত্য-মিথ্যা যাচাই, শিরোনাম ম্যাচিং, সংক্ষিপ্ত উত্তর, বাক্যপূরন ইত্যাদি ধরণের হয়ে থাকে। অর্থাৎ ৬০ মিনিটে তিনটি ভিন্ন ভিন্ন প্যাসেজ থেকে মোট ৪০ টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়।

Writing Test: এই অংশে একজন পরিক্ষার্থীর কোন বিষয় সম্পর্কে ইংরেজি ভাষায় বর্ননা করার ক্ষমতা যাচাই করা হয়। এই টেস্টটি সাধারণত ৬০ মিনিটের হয়ে থাকে। Academic এবং General training মডিউলে ভিন্ন ধরণের প্রশ্ন হয়ে থাকে এবং দুটি মডিউলের মধ্যে General training মডিউলটি তুলনামূলকভাবে সহজ।

Academic training মডিউলটিও দুটি টাস্কে বিভক্ত। প্রথম টাস্কে একটি graph, chart (bar chart, bar diagram, pie chart) অথবা table দেওয়া থাকে। যার সম্পর্কে কমপক্ষে ১৫০ শব্দের মধ্যে উত্তরপত্রে হাতে লেখে বর্ননা করতে হয়। দ্বিতীয় টাস্কে সাধারণত কোন নির্দিস্ট বিষয় দেওয়া হয়। যেই বিষয়ের উপর ভিত্তি করে কমপক্ষে ২৫০ শব্দের মধ্যে একটি যুক্তিমূলক প্রবন্ধ লিখতে হয়। অর্থাৎ ৬০ মিনিটে দুটি ভিন্ন টাস্কে ১৫০ এবং ২৫০ শব্দের মধ্যে দুটি প্রবন্ধ লিখতে হয়।

General training মডিউলটিও  দুটি টাস্কে বিভক্ত। প্রথম টাস্কে একটি সাধারণ চিঠি লিখতে হয় এবং দ্বিতীয় টাস্কে একটি সাধারণ প্রবন্ধ লিখতে হয়। অর্থাৎ ৬০ মিনিটে একটি সাধারণ চিঠি এবং একটি সাধারণ প্রবন্ধ লিখতে হয়।

Speaking Test: এই অংশে একজন পরিক্ষার্থীর ইংরেজি ভাষায় কথা বলার ক্ষমতা যাচাই করা হয়। এই টেস্টটি ১১-১৪ মিনিটের হয়ে থাকে। Academic এবং General training উভয় মডিউলে একই ধরণের প্রশ্ন হয়ে থাকে। টেস্টটি মূলত তিনটি টাস্কে বিভক্ত। প্রথম টাস্কটি হল “introduction and interview”। এই টাস্কটি সাধারণত ৪-৫ মিনিটের হয়ে থাকে। অর্থাৎ এই অংশে একজন ইন্টারভিউয়ার প্রথমেই নিজের পরিচয় দিয়ে পরিচিত হয়ে নিবেন। এরপর তিনি পরিক্ষার্থীকে নাম, বয়স, পরিবার, পছন্দের কাজ ইত্যাদি বিষয়ে বেসিক কিছু প্রশ্ন করে থাকেন। দ্বিতীয় টাস্কটি হল “individual long turm”।এই টাস্কটি সাধারণত ৩-৪ মিনিটের হয়ে থাকে। অর্থাৎ এই অংশে ইন্টারভিউয়ার পরিক্ষার্থীকে একটি টাস্ক কার্ড বা কিউ কার্ড দিবেন। যেখানে একটি নির্দিস্ট টপিক দেওয়া থাকবে। এক্ষেত্রে প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য ১ মিনিট সময় দেওয়া হয় এবং প্রস্তুতি নেওয়ার পর টপিকটির উপর কমপক্ষে ২ মিনিট কথা বলতে হয়। তৃতীয় টাস্কটি হল “two-way discussion”।এই টাস্কটি সাধারণত ৪-৫ মিনিটের হয়ে থাকে। অর্থাৎ এই টাস্কটিতে দ্বিতীয় টাস্কের উপর ভিত্তি করে ইন্টারভিউয়ার প্রশ্ন করে থাকেন। পরিক্ষার্থীকে টপিকের পক্ষে বা বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে নিজের মতামত তুলে ধরে ইন্টারভিউয়ারের সাথে কথোপকথন করতে হয়। সম্পুর্ন টেস্টটি রেকর্ড করা হয়। যা পরবর্তিতে মূল্যায়ন করা হয়।

 

Band Score- প্রথমেই মনে রাখুন IELTS টেস্টে কোন ফেইল নেই। IELTS এর Band Scores ১-৯ স্কেলে হিসাব করা হয়। এক্ষেত্রে চারটি সেকশনের (Listening, Reading, Writing, Speaking) আলাদা আলাদা Band Scores হিসাব করে তাদের যোগফলকে ৪ দিয়ে ভাগ করে Overall IELTS Band Score হিসাব করা হয়। প্রতিটি সেকশনে কিভাবে Band Scores হিসাব করা হয় তা প্রতিটি সেকশনের বিস্তারিত আলোচনায় দেখবো।Overall IELTS Band Score কিভাবে হিসাব করা হয় তার একটা উদাহরণ দেখা যাক –

ধরুন আপনার চারটি সেকশনের আলাদা আলাদা Band Scores নিমরুপ-

  • Listening  =    7.0
  • Reading   =    6.0
  • Writing     =    6.5
  • Speaking =    6.5

Overall Band Score = (7.0 + 6.0 + 6.5 + 6.5) / 4

  •                        = 6.5

 

প্রস্তুতি- আপনি যদি এইসএসসি বা গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করে থাকেন, এর মানে আপনি ইংরেজি ভাষার অনেক কিছুই জানেন। এক্ষেত্রে IELTS  test এর ফরম্যাট জানা এবং টেস্টের প্রস্তুতির জন্য ২-৩ মাস যথেষ্ট। এখন আপনার মনে প্রশ্ন আসতে পারে  কিভাবে প্রস্তুতি নেওয়া শুরু করবেন। আপনি saifurs, mentors এর মত কোচিং সেন্টার থেকে কোর্স করতে পারেন অথবা  অনলাইন কোর্সও করতে পারেন। আপনার যদি সত্যি ইচ্ছা থাকে, তাহলে কোন কোচিং সেন্টারে না যেয়েও নিচের ওয়েবসাইট গুলো অনুসরণ করে ভালো প্রস্তুতি নিতে পারেন।

  • ১। British Council  এই ওয়েবসাইটটি দেখতে পারেন।
  • ২। Dominic Cole  এই ওয়েবসাইটটি দেখতে পারেন।

ভিডিও সিরিজ-

  • ১। 10 Minute School youtube channel এর IELTS Playlist এর ভিডিও সিরিজটি দেখতে পারেন।
  • ২। Higher Study Abroad youtube channel এর IELTS Playlist এর ভিডিও সিরিজটি দেখতে পারেন।
  • ৩। GREC BD youtube channel এর IELTS Playlist এর ভিডিও সিরিজটি দেখতে পারেন।

 

অনুশীলনের জন্য-

 

IELTS Cambridge Series  এর  4,5,7,8,9,10 এই ৬টি বই কিনে অনুশীলন করতে পারেন।

 

 

 

রেজিস্ট্রেশন এবং টেস্ট ফি – রেজিস্ট্রেশন করার জন্য প্রথমেই আপনাকে একটি বৈধ পাসপোর্ট থাকতে হবে। প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে British Council এর ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে একটি ফর্ম পূরন করতে হবে। টেস্ট ফি হিসেবে ১৫-১৬ হাজার টাকা লাগবে। অর্থাৎ একটি বৈধ পাসপোর্ট, পূরনকৃত ফর্ম এবং টেস্ট ফি নিয়ে British Council এর ঢাকা, চট্টগ্রাম এবং সিলেট অফিসে রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা যায়।

এক্ষেত্রে একটা জিনিস মনে রাখতে হবে, আপনি যে তারিখে টেস্ট দিতে  ইচ্ছুক কমপক্ষে তার ১৫ দিন পূর্বে রেজিস্ট্রেশন  প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হবে। তবে এক্ষেত্রে উপদেশ হলো- ভিসা অ্যাপ্লিকেশন করার কমপক্ষে ৬ মাস পূর্বে রেজিস্ট্রেশন করে টেস্ট দেওয়া উচিত। কারণ কাঙ্ক্ষিত স্কোর না আসলে যাতে পুনরায় টেস্ট দিতে পারেন।

 

পরীক্ষা- “British Council Bangladesh” বাংলাদেশে পাঁচটি লোকেশনে (ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, খুলনা, রাজশাহী) IELTS  test এর সুবিধা দিয়ে থাকে। প্রতি মাসে সর্বোচ্চ তিন বার পরীক্ষা হয়ে থাকে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *