বিশ্বের সকল ভাষাকে কোডভুক্ত করা সম্ভব হয়েছে – ব্যাখ্যা কর। য. বোর্ড-২০১৯

বিশ্বের সকল ভাষাকে কোডভুক্ত করা সম্ভব হয়েছে

বিশ্বের সকল ভাষাকে কোডভুক্ত করা সম্ভব হয়েছে – ব্যাখ্যা কর।

[যশোর বোর্ড-২০১৯]

 

বিশ্বের সকল ভাষার সকল বর্ণ বা চিহ্নকে কোডভুক্ত করার জন্য ইউনিকোড (Unicode) ব্যবহৃত হয়।

Unicode এর পূর্ণরূপ হলো Universal Code যা মূলত ২ বাইট বা ১৬ বিটের কোড। এ কোডের মাধ্যমে ২১৬  বা ৬৫,৫৩৬ টি অদ্বিতীয় চিহ্ন কম্পিউটারকে অদ্বিতীয়ভাবে বুঝানো যায়। ফলে বিশ্বের সকল ভাষার সকল বর্ণ বা চিহ্নকে কম্পিউটারে নির্দিষ্ট করা বা কোডভুক্ত করা সম্ভব হয়েছে।

 

 

এই প্রশ্নসমূহের উত্তর হুবহু মুখস্ত করবে না। নমুনা প্রশ্ন ও উত্তর দেয়া হয়েছে যাতে বুঝতে পারো কীভাবে প্রশ্ন হয় এবং কীভাবে উত্তর করতে হবে।

 

 

ভিডিও লেকচার পেতে YouTube চ্যানেলটিতে Subscribe করো। 

HSC ICT তৃতীয় অধ্যায়ের নোট পেতে ক্লিক করো।

ICT সম্পর্কিত যেকোন প্রশ্নের উত্তর জানতে Facebook গ্রুপে যুক্ত হও।

 

একই ধরণের নমুনা প্রশ্নসমূহ: 

  • ইউনিকোডের পূর্বে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত আলফানিউমেরিক কোডটি ব্যাখ্যা কর। [ঢাকা বোর্ড-২০১৭]
  • “বিশ্বের সকল ভাষাকে কোডভুক্ত করা সম্ভব হয়েছে”- ব্যাখ্যা কর। [যশোর বোর্ড-২০১৯]
  • ইউনিকোড ‘বাংলা’ ভাষা বুঝতে পারে – ব্যাখ্যা কর। [ঢাকা বোর্ড-২০১৯]
  • ইউনিকোড বিশ্বের সকল ভাষাভাষী মানুষের জন্য আশীর্বাদ- বুঝিয়ে লিখ। [ চট্রগ্রাম বোর্ড-২০১৭]
  • পৃথিবীর সকল ভাষাকে কম্পিউটার কোডভূক্ত করার জন্য ব্যবহৃত কোডটির বর্ণানা দাও।
  • “ইউনিকোড সকল ভাষার জন্য উপযোগী”- ব্যাখ্যা কর।

 

এই অধ্যায়ের সকল অনুধাবনমূলক প্রশ্ন-উত্তর দেখতে ক্লিক করো

 


Written by,

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published.